৩৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে দেশের একমাত্র শহীদ মুক্তি ও মিত্র বাহিনী স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণ হচ্ছে খাজুরায়

0
184

যে জাতি বীরদের সম্মান করতে জানেনা, সে দেশে কখনো বীরের জন্ম হয় না। দেশ স্বাধীন করেই মুক্তিযোদ্ধাদের কাজ শেষ হয়নি। শুধু জামায়াতকে নিষিদ্ধ করলে চলবে না, তাদের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করতে হবে। যেখানে মুক্তি ও মিত্র বাহিনীরা শহীদ হয়েছিল সেখানেই শহীদ স্মৃতিস্তম্ভ তৈরি হবে।

গত মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় যশোরের খাজুরা এম.এন.মিত্র মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ৩৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে দেশের একমাত্র শহীদ মুক্তি ও মিত্র বাহিনী স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের নির্ধারিত জায়গা পরিদর্শনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক (এমপি) একথা বলেন।

খাজুরা এম.এন.মিত্র মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইছালী ইউপি চেয়ারম্যান এস.এম আফজাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন যশোরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেড মোঃ শফিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ‘ক’ সার্কেল শেখ গোলাম রব্বানী, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইব্রাহীম, লেবুতলা ইউপি চেয়ারম্যান আলিমুজ্জুামান মিলন।

বক্তব্য রাখেন যশোর সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি মোঃ একরামুদ্দৌলা, সাবেক জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোজাহারুল ইসলাম মন্টু, সদর উপজেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোহাম্মদ আলী স্বপন ও নজরুল ইসলাম।

মুক্তিযোদ্ধা গোলাম রসুলের সঞ্চালনায় এসময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক জেলা মুক্তিযোদ্ধা সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সাত্তার মুক্তিযোদ্ধা গাজী আরমান হোসেন, রেজাউল ইসলাম জাহাঙ্গীর, আব্দুল গফুর, গোলাম রসুল, ইজাহার আলী, কাজী গোলাম ফারুক, নিকমাল হোসেন।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বন্দবিলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ ডাকু। এর আগে মন্ত্রী মহোদয়কে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন খাজুরা এম.এন.মিত্র মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা।