এখন অ্যাকশনের সময় – মেয়র আতিকুল

0
170

ঢাকার বনানীর ফারুক-রূপায়ন (এফআর) টাওয়ারে অগ্নিকান্ডে হতাহতের পর রাজধানীর বহুতল ভবনগুলোতে অগ্নিনিরাপত্তা ব্যবস্থা ঠিক আছে কি না, তা যাচাই করে দেখার পদক্ষেপ নেবে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন। উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলাম শুক্রবার সকালে পোড়া এফআর টাওয়ারে সামনে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করীমও এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন। মেয়র বলেন, আমরা ভেতরে ঢুকে সঙ্গে সঙ্গে চলে এসেছি, এখন সেখানে যাওয়ার উপায় নেই। (ঢাকায়) যে বহুতল ভবনগুলো আছে প্রত্যেকটি বিল্ডিংয়ে তাদের ফায়ার সেফটি এবং বিল্ডিং সেফটির যত ধরনের পারমিশন- সব কিছু আগামী ১০ দিনের মধ্যে আমাকে দিতে হবে।

বহুতল ভবনগুলোর ফায়ার সেফটি ও ভবন সেফটির কাগজপত্র রেডি রাখতে জনস্বার্থে নোটিস দেওয়া হবে বলে জানান মেয়র আতিকুল। তিনি বলেন, নোটিস দেওয়ার পর ম্যাজেস্ট্রিট পাঠাব। যদি দেখা যায় ফায়ার সেফটি নিয়ে তারা কাজ করেনি, অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন নেব। আমি বলেছি আমাদের এখন আর কথা বলার সময় নয়, অ্যাকশনের সময়। আমরা অ্যাকশনে বিশ্বাস করি এবং আমরা অনেক কথা বলেছি।

ভবন নিরাপত্তা নিয়ে সিটি করপোরেশন ও রাজউক একসঙ্গে কাজ করতে চায় বলে জানান আতিকুল। কামাল আতাতুর্ক এভিনিউয়ের ২২ তলা ওই ভবনে বৃহস্পতিবার দুপুরে আগুন লাগার পর প্রায় সাড়ে সাত ঘণ্টার চেষ্টায় তা পুরোপুরি নেভাতে সক্ষম হয় ফায়ার সার্ভিসের ২১টি ইউনিট। উত্তরের মেয়র আতিকুল আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর ঘটনাস্থলে সাংবাদিকদের বলেছিলেন, সুউচ্চ ভবনটি গড়তে ইমারত বিধি মানা হয়নি বলে তার মনে হয়েছে।

আর ওই ভবনে অগ্নি নির্বাপণের নিজস্ব কোনো ব্যবস্থাও ছিল না বলে সাংবাদিকদের জানান দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালযয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান। কামাল আতাতুর্ক এভিনিউয়ে ফারুক নামের এক ব্যক্তির জমিতে আবাসন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান রূপায়নের নির্মাণ করা ২২ তলা ভবনটি সংক্ষেপে এফআর টাওয়ার নামেই পরিচিত। এক দশক আগেও সেখানে একবার অগ্নিকান্ড ঘটেছিল। এবারের অগ্নিকান্ডের কারণ খতিয়ে দেখতে চারটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে সরকারের বিভিন্ন দপ্তর। এর মধ্যে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের গঠিত কমিটিকে ওই ভবনের নকশা অনুমোদন এবং নির্মাণ কাজে ত্রুটি-বিচ্যুতি ছিল কি না- তা খতিয়ে দেখতে বলা হয়েছে।