মণিরামপুরে যাত্রীবাহী বাসচাপায় দুই স্কুলছাত্র নিহত

0
197

যশোরের মণিরামপুরে ঢাকাগামী হানিফ পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসচাপায় আশিকুর রহমান ও আল-আমিন নামে দুই স্কুলছাত্র নিহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) দুপুরে যশোর-চুকনগর সড়কের মণিরামপুর উপজেলার বিজয়রামপুর খইতলা মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত আশিকুর রহমান উপজেলার ধলিগাতী গ্রামের স্কুলশিক্ষক খাইরুল বাসারের ছেলে এবং আল-আমিন জামলা গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে। নিহতরা দু’জনই উপজেলার ধলিগাতী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র।

প্রত্যক্ষদর্শী ও নিহতের পরিবারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নিহত দু’ স্কুলছাত্র মণিরামপুর বাজারের একটি কোচিং সেন্টার থেকে প্রাইভেট পড়ে একটি বাইসাইকেলে চড়ে বাড়ি ফিরছিল। পথে বিজয়রামপুর খইতলা মোড়ে পৌঁছালে ঢাকাগামী যাত্রীবাহী একটি বাস তাদের চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আশিকুরকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে গুরুতর আহত আল-আমিনকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. আশরাফুর রহমান বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই আশিকুরের মৃত্যু হয়েছে। আহত আল-আমিনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে যশোর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিলো, সেখানে পৌঁছানো মাত্রই তারও মৃত্যু হয়েছে।

মণিরামপুরের ধলিগাতী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দীলিপ কুমার পাল  বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় আমার সন্তানতুল্য বিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র আশিকুর রহমান ও আল-আমিনকে হারিয়ে সবাই বাকরুদ্ধ। তারা শ্রেণির ফার্স্ট ও সেকেন্ড বয় এবং গোল্ডেন জিপিএ-৫ পাওয়ার মতো মেধাবী।

এদিকে সড়ক দুর্ঘটনায় দু’স্কুলছাত্র নিহতের ঘটনার প্রতিবাদে সহপাঠীরাসহ এলাকাবাসী যশোর-চুকনগর সড়কের সুন্দলপুর বাজারে গাছের গুঁড়ি ফেলে অবরোধ করে ঘাতক চালক ও হেলপারকে আটকের দাবি জানায়। পরে মণিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে আটকের আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেয়।