৩ মাসের মধ্যে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে সব চ্যানেলের সম্প্রচার

0
101

 বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে আগামী ২ থেকে ৩ মাসের মধ্যে দেশের সব বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল সম্প্রচারিত হবে। মঙ্গলবার (৬ আগস্ট) সচিবালয়ে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদের সঙ্গে বৈঠকের পর বেসরকারি টেলিভিশন মালিকদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব টেলিভিশন চ্যানেল ওনার্সের (অ্যাটকো) নেতারা এ তথ্য জানিয়েছেন।

অ্যাটকোর সদস্য ও ডিবিসি নিউজের চেয়ারম্যান ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেন, ‘আগামী বৃহস্পতিবার (৮ আগস্ট) আমাদের টেকিনিক্যাল প্রতিনিধিরা বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বসবেন এবং টেকনিক্যাল সমস্যাগুলো দূর করার বাস্তব পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন। আশা করি, ২/৩ মাসের মধ্যে আমরা পুরোপুরিভাবে বাংলাদেশের সব চ্যানেল (টিভি চ্যানেল) বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সম্প্রচার করতে পারব -এটি আমাদের প্রত্যয়।’

অ্যাটকোর সিনিয়র সহ-সভাপতি ও একাত্তর টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোজাম্মেল বাবু বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে সবকটি চ্যানেলই টেস্ট ট্রান্সমিশনে আছি। টেস্ট ট্রান্সমিশন চলাকালীন ফাইবার কানেক্টিভিটি যেহেতু ঢাকা থেকে গাজীপুর পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া হচ্ছে, উন্নয়ন কর্মকাণ্ডসহ নানা কারণে মাঝে মাঝে ফাইবার কাটা পড়ার কিছু ঘটনা ঘটেছে। এ কনসার্নগুলো তাদের ব্যক্ত করেছি।’

স্যাটেলাইট কর্তৃপক্ষ বিকল্প যোগাযোগ ব্যবস্থা আরও বাড়াতে সম্মত হয়েছে জানিয়ে মোজাম্মেল বাবু বলেন, ‘দু-তিনটা বিকল্প লাইন থাকলে যাতে কোনো একটা এক্সিডেন্টালি কাটা পড়লেও কোনো অসুবিধা না হয়।’

তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট সর্বশেষ প্রযুক্তিতে নির্মিত একটি স্যাটেলাইট। আমরা যে স্যাটেলাইট ব্যবহার করছি, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে এর চেয়ে বেশি ভালো ছবি এবং ব্রডকাস্ট কোয়ালিটি পাচ্ছি। শুধু কমিউনিকেশন ফাইবার কানেক্টিভিটি সমস্যাটা দূর হলে আমাদের বর্তমান স্যাটেলাইট সম্পূর্ণ ডিসকানেক্ট করে দেব, এতে ৩০ থেকে ৬০ দিনের বেশি সময় লাগবে না বলে মনে হয়।’

মোজাম্মেল বাবু বলেন, ‘আপনারা জানেন, বর্তমান তথ্যমন্ত্রী দায়িত্ব নেয়ার পর আমাদের ইলেকট্রনিক মিডিয়ার বিরাজমান অনেক সমস্যা সমাধান হতে শুরু করেছে। দীর্ঘদিন ধরে পেন্ডিং ছিল জন্মের ক্রমানুযায়ী টেলিভিশনের ডিস্ট্রিবিউশন সিরিয়ালের বিষয়টি। এটি আমরা দীর্ঘদিন ধরে দাবি করে আসছিলাম, এটা হয়নি। এখন সেটা কার্যকর হয়েছে।