আইভি রহমানের স্মরণে মিলাদ মাহফিলে প্রধানমন্ত্রী

0
45

আওয়ামী লীগের সাবেক মহিলাবিষয়ক সম্পাদক এবং প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের স্ত্রী আইভি রহমানের ১৫তম মৃত্যুবার্ষিকীতে আয়োজিত মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে অংশ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলায় মারাত্মক আহন হন আইভি রহমান। চার দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে ২৪ আগস্ট শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

শনিবার (২৪ আগস্ট) আসরের নামাজের পর গুলশানে আইভি কনকর্ডে এ মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠানে আইভি রহমানের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও আইভি রহমানের স্বজন- শুভাকাঙ্ক্ষী, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, সংসদ সদস্য, আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা মিলাদ ও দোয়ায় অংশ নেন।

এছাড়া, আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী, অ্যাডভোকেট আবদুল মতিন খসরু, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমাদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, প্রখ্যাত অভিনেতা ও সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান (ফারুক), তথ্যসচিব আবদুল মালেক ও বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন মিলাদে যোগ দেন।

অনুষ্ঠানে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান, আইভি রহমান ও ২১ আগস্টের সকল নিহতদের জন্য বিশেষ মোনাজাত ও দোয়া করা হয়।

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে শেখ হাসিনার জনসভায় অংশ নিয়ে গ্রেনেড হামলায় মারাত্মক আহন হন আইভি রহমান। এরপর ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চার দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে ২৪ আগস্ট শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

১৯৪৪ সালের ৭ জুলাই ভৈরবে আইভি রহমানের জন্ম। তার বাবা জালাল উদ্দিন আহমেদ ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ ছিলেন। মা হাসিনা বেগম ছিলেন গৃহিণী। আইভি রহমানের একমাত্র ছেলে নাজমুল হাসান বর্তমানে কিশোরগঞ্জ-৬ আসনের সাংসদ। তিনি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতিও। আইভি রহমানের দুই মেয়ে তানিয়া বাখ্ত ও তনিমা রহমান।

এর আগে আইভি কনকর্ডে পৌঁছে প্রধানমন্ত্রী আইভি রহমান ও জিল্লুর রহমানের সন্তান বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান নাজমুল হাসান পাপনসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন এবং সমবেদনা জানান।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.