এই বোঝার ভার বহন আমাদের জন্য সত্যিই কষ্টসাধ্য

0
162

এই বোঝার ভার বহন আমাদের জন্য সত্যিই কষ্টসাধ্য

রোহিঙ্গা ইস্যুতে তুরস্কের ফার্স্ট লেডি ম্যাডাম এমিন এরদোয়ান কান্নাকাটি করে আকাশ বাতাস ভারী করে গেলেন! আবার ম্যাডামের পতি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান রোহিঙ্গাদের খরচ বহন করার ঘোষনাও দিয়েছেন। কিন্তু নিজের দেশে আশ্রয় দেয়া বা নিয়ে যাওয়ার জন্য মুখের কথাও একবার বলছেন না!!

সম্প্রতি সময়ে আমাদের দেশে সব বড় সমস্য রোহিঙ্গা। মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে তাদের আশ্রয় দেয়া হয়েছে, তবে তাদের বসতি স্থায়ী হলে অবশ্যই সেটি হবে বাংলাদেশের জন্য বড় বোঝা। এই বোঝার ভার বহন আমাদের জন্য সত্যিই কষ্টসাধ্য।

এই সমস্যা সমাধানে তুরস্ক রাজনৈতিক লেকচার না দিয়ে কার্যকর ভূমিকা পালন করতে পারে। কারণ বাংলাদেশের তুলনায় তুরস্কের আয়তন কয়েকগুণ বড়। আবার আমাদের তুলনায় তাদের জনসংখ্যায় কয়েকগুণ কম। ২০১৬ সালের সরকারী তথ্য অনুযায়ী প্রতিবর্গ কিলোমিটারে তুরস্কে ১০২ গড়ে লোক বাস করে, আর বাংলাদেশে ২০১১ সালের তথ্য অনুযায়ী ১১০৬ জন।

তাই তুরস্কের উচিত হবে বাংলাদেশের মত ঘনবসতিপূর্ণ দেশে রোহিঙ্গাদের না রেখে তাদের দেশে নিয়ে যাওয়া। একই সাথে এই বিপুল জনগোষ্ঠী সম্পদে রূপান্তরের মাধ্যমে তুরস্কের উন্নয়ন কাজে ব্যবহার করা।

লেখকঃ তৌফিক অরিন, শিক্ষার্থী, ঢাকা কলেজ