যশোর সরকারী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ছাত্রী হোস্টেলের পরিবেশ উত্তপ্ত

0
251

নিজস্ব প্রতিবেদক : ছাত্রলীগের কতিপয় সদস্যের অত্যাচার ও নির্যাতনের শিকার হয়ে ছাত্রীদের হোস্টেল ত্যাগ
যশোর সরকারী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ছাত্রী হোস্টেলের পরিবেশ উত্তপ্ত  ।

যশোর সরকারী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ছাত্রী হোস্টল ‘কপোতাক্ষ ছাত্রী নিবাস’ এ ছাত্রলীগের কতিপয় ছাত্রী সদস্যের অত্যাচার ও নির্যাতনে হোস্টেলটির পরিবেশ উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে।ফলশ্রুতিতে ৩১ অক্টোবর বিকালে সন্ত্রাসী ছাত্রীদের ভয়ে সাধারণ ছাত্রীরা হোস্টেল ত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছে।
নির্যাতিত ছত্রিীরা(নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) জানিয়েছে,বেশ কিছুদিন যাবৎ হোস্টেলের ছাত্রী নাইমা,রুপা,স্বপ্না,নসিবা ও রিয়া ছাত্রলীগের দোহাই দিয়ে হোস্টেলে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।ওরা ম্যাচের খাবার জোর করে ফ্রি খেতে চায়।বাধা দিলে সিনিয়র ছাত্রীদেরকে অপমান করে।ওদের বিরুদ্ধে সাধারণ ছাত্রীদেরকে হুমকি-ধামকি ও মারধোর করার অভিযোগ রয়েছে।

যা হোস্টেল সুপারকে বার বার জানালেও তিনি অজ্ঞাত কারনে কোন ব্যবস্থা নেননা।সাধারণ ছাত্রীদেরকে তিনি মানিয়ে চলতে বলেন।ইমিধ্যে এদের নেতৃত্বে কয়েকজন সিনিয়র ছাত্রীদের রুম দখলের ঘটনা ঘটেলেও হোস্টেল সুপার নীরব দর্শকের ভুমিকা পালন করেছেন বলে জানা যায়।৩০ অক্টোবর রাত ১০টার দিকে রাফিয়া ও সনিয়া নামক সপ্তম পর্বের দুইজন ছাত্রীকে একটি রুমে ডেকে নিয়ে সন্ত্রাসী নাইমা,রুপা,স্বপ্না,নসিবা ও রিয়া অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে এবং তাদের কথা না শুনলে হাত-পা ভেঙ্গে ফেলার হুমকি দেয়।একপর্যায়ে ৩১ অক্টোবর সকাল ৯টার দিকে এই সন্ত্রাসী ছাত্রীরা নিশি নামক একজন সাধারণ ছাত্রীকে মারপিট করে। একপর্যায়ে সাধারণ ছাত্রীরা অধ্যক্ষের নিকট অভিযোগ জানালে তিনি বিষয়টি দেখবেন বলে জানান।

অধ্যক্ষের কক্ষ থেকে বের হলে তাদেরকে আজ রাতে দেখা হবে বলে আবারও হুমকি দেয়া হয়।একপর্যায়ে জীবনের নিরাপত্তার অভাবে সাধারণ ছাত্রীরা বিকাল ৩ ঘটিকা হতে হোস্টেল ত্যাগ করতে শুরু করে।এ ব্যাপারে ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ মীর মোশারফ হোসেনের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন,‘‘বিষয়টি আমি শুনেছি এবং প্রশাসনকে জারিয়েছি।এখনও প্রশাসনের লোক আসেনি।এছাড়া হোস্টেল সুপারের মোবাইলে বার বার ফোন করলেও তিনি রিসিভ করেননি।